গ্রাফিক ডিজাইন এবং ফ্রিল্যান্সিং শিখতে আগ্রহীদের জন্য গাইডলাইন

2
1151

স্মরন রাখবেন, রাতা রাতি কোন কিছু করা সম্ভব নয়, স্কিল ডেভেলপ করার জন্য সময় দিতে হবে। আর কোন কিছু বুঝার আগেই কোন ডিভিডি কিনবেন না কিংবা যাচাই করা ছাড়াই কোন ট্রেইনিং সেন্টারে ভর্তি হবেন না, কারন এখন অনেকেই নিজে কাজ শিখে সফল হওয়ার আগেই ট্রেনিং সেন্টার কিংবা ডিভিডি বিক্রি করায় ব্যাস্ত। আপনার আবেগকে পুঁজি করে আপনাকে ঠকানোর ফাঁদের অভাব নেই। সুতরাং যাচাই বাচাই করে সিদ্ধান্ত নিবেন। ইউটিউবে প্রত্যেক কেটাগরীর পর্যাপ্ত বাংলা টিউটোরিয়াল আছে। শিখার আগ্রহ থাকলে শুধুমাত্র টিউটোরিয়াল দেখেই যেকোন স্কিল ডেভেলোপ করা সম্ভব।
এমন ভাবার কারন নেই যে শুধুমাত্র গ্রাফিক ডিজাইন নিয়েই ফ্রিল্যান্সার হওয়া যায়, এমন অনেক কেটাগরী আছে যেখানে আপনি সফলতা পেতে পারেন সহজেই।

ফ্রিল্যান্সিং :-

আপনার যদি স্বাধীনতা পছন্দ হয়, নিজ বাসায় বা যে কোন স্থান থেকে কাজ করতে ভালো লাগে, তাহলে ফ্রিল্যান্সিং করতে পারেন।একদম সহজ থেকে শুরু করি, আপনি যা জানেন তা দিয়েই কাজ শুরু করতে পারবেন। লেখা লেখি, ডেটা এন্ট্রি, প্রোগ্রামিং, মার্কেটিং, টাইপিং, ডিজাইনিং, ইমেজ এডিটিং, প্রেজেন্টেশন তৈরি, ডেভেলপমেন্ট, ভার্চুলাল এসিস্ট্যান্ট সহ অনেক কিছু।

কোন কাজ না জানলে আপনার কাছে যে কাজটা ভালো লাগে এমন একটা কাজ শিখে নিতে পারেন। এরপর যে কোন একটা বিষয়ে দক্ষ হতে হবে। এরপর অনলাইন মার্কেটপ্লেস গুলতে একটু সময় দিতে হবে। ঘাটাঘাটি করতে হবে। যারা অনেক দিন থেকে কাজ করে, তাদের প্রোফাইল দেখতে হবে। তাদের প্রোফাইল দেকে তাদের প্রোফাইলের মত নিজের প্রোফাইল সাজাতে হবে। এবং ইংরেজীতে একটু দক্ষ হতে হবে। এমন না যে ফ্লুয়েন্টলি আপনাকে কথা বলতে হবে বা লিখতে হবে। অন্তত একটি জব পোস্ট পড়ে কি কি করতে বলছে, কি কি করতে হবে এবং ক্লায়েন্টের সাথে কথা বলার মত ইংরেজী জ্ঞান থাকতে হবে।

গ্রাফিক ডিজাইন :-

গ্রাফিক শব্দটির অর্থ ড্রইং বা রেখা। ডিজাইন শব্দটির অর্থ পরিকল্পনা বা নকশা।

গ্রাফিক ডিজাইন করা খুবই সহজ, প্রায় সবাই এটা করতে পারেন। এমন ভাবনা রয়েছে অনেকেরই, কিন্তু কথাটা ভুল। বেশ কিছু কঠিন বিষয় আগে মাথায় এবং হাতে আনতে হবে তারপর কাজটি হয়তো সহজ হবে।

গ্রাফিক্স ডিজাইন কিভাবে শিখবেন তা নিয়ে ভিডিও দেয়া হবে

Facebook Comments

2 COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here